আজারবাইজানের বিরুদ্ধে যুদ্ধবিরতি চুক্তি ভঙ্গের অভিযোগ আর্মেনিয়ার

প্রকাশিত: ১:১১ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৮, ২০২০

আজারবাইজানের বিরুদ্ধে যুদ্ধবিরতি চুক্তি ভঙ্গের অভিযোগ আর্মেনিয়ার

অনলাইন ডেস্ক :: বিতর্কিত নাগোরনো-কারাবাখ এলাকায় নতুন করে যুদ্ধবিরতি কার্যকর হওয়ার মাত্র কয়েক মিনিটের মাথায় আজারবাইজান তা লঙ্ঘন করেছে বলে অভিযোগ তুলেছে আর্মেনিয়া।

স্থানীয় সময় শনিবার মধ্যরাতে ওই যুদ্ধবিরতি কার্যকর করতে সমঝোতা হয়েছিল। খবর বিবিসির।

কিন্তু আর্মেনিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র জানান, যুদ্ধবিরতি কার্যকর হওয়ার মাত্র ৪ মিনিটের মাথায় আর্টিলারি শেল ও রকেট ছুড়ে তা লঙ্ঘন করে আজারবাইজান।

এই অভিযোগের বিষয়ে এখনও কোনো মন্তব্য করেনি আজারবাইজান। গত সপ্তাহান্তে কয়েকটি চুক্তিতে সম্মতি আসার কারণে যুদ্ধবিরতি চুক্তিটিও স্বাক্ষরিত হয়েছিল। তবে এর পরও সংঘর্ষ চলেছে।

গত মাসে এমন একটি এলাকা নিয়ে যুদ্ধ শুরু হয়েছিল, যা আন্তর্জাতিকভাবে আজারবাইজানের অংশ বলে স্বীকৃতি থাকলেও জাতিগত আর্মেনীয়রা এটি পরিচালনা করেন। এই সংঘাতে তিনশতাধিক মানুষ নিহত হন।

ওই এলাকায় ১৯৯৪ সালে একটি যুদ্ধবিরতির মাধ্যমে ছয় বছরের সংঘাতের অবসান হওয়ার পর এটি সবচেয়ে ভয়াবহ নৃশংসতা।

এর আগে শনিবার দুই দেশই রুশ-মধ্যস্থতায় হওয়া যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘনের পাল্টাপাল্টি অভিযোগ আনে।

আজারবাইজানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, যুক্তরাষ্ট্র, ফ্রান্স ও রাশিয়ার প্রেসিডেন্টদের দেয়া বিবৃতির ওপর ভিত্তি করে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। নাগোরনো-কারাবাখ সংঘাতে মধ্যস্থতা করার জন্য ওই তিন দেশের নেতৃত্বে ১৯৯২ সালে ওএসসিই মিনস্ক গ্রুপ নামে একটি সংগঠন গড়ে তোলা হয়।

রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভর গত সপ্তাহে হওয়া চুক্তির মধ্যস্থতা করেছিলেন। নতুন করে তিনি দুই দেশেরই পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের সঙ্গে কথা বলেছেন। তিনি তাদের বলেন, দুই দেশেরই আগের চুক্তিটির শর্ত কঠোরভাবে মেনে চলা উচিত।

আর্মেনিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র শুশান স্টিপানিয়ান টুইটারে লেখেন– শত্রুপক্ষ স্থানীয় সময় শনিবার রাত ১২টা ৪ মিনিটে উত্তর দিকে আর্টিলারি শেল নিক্ষেপ করে এবং রাত ২টা ২০ থেকে ৪৫ মিনিটের মধ্যে দক্ষিণ দিকে রকেট নিক্ষেপ করে।

আজারবাইজান অভিযোগ করে, আর্মেনিয়া শনিবার সকালে গ্যানজা শহরে ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ে ১৩ বেসামরিক নাগরিককে হত্যা এবং ৪৫ জনকে গুরুতর আহত করেছে। শহরটি যুদ্ধাঞ্চল থেকে দূরে বলেও জানানো হয়।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওই বিবৃতিতে অভিযোগ করা হয়, আর্মেনিয়া ইচ্ছা করে নির্বিচারে বেসামরিক নাগরিকদের টার্গেট করছে।

আর্মেনিয়া হামলার অভিযোগ অস্বীকার করে পাল্টা অভিযোগে বলেছে, আজারবাইজানই মূলত বেসামরিক এলাকায় হামলা করছে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun
     12
24252627282930
       
22232425262728
2930     
       
  12345
2728     
       
28      
       
       
       
1234567
2930     
       

আমাদের ফেইসবুক পেইজ