বাংলাদেশ বিমানের বিশেষ ফ্লাইটে স্পেনে ফিরলেন ২৭৩ বাংলাদেশী

প্রকাশিত: ১২:২২ অপরাহ্ণ, জুন ২০, ২০২০

বাংলাদেশ বিমানের বিশেষ ফ্লাইটে স্পেনে ফিরলেন ২৭৩ বাংলাদেশী

অনলাইন ডেস্ক : বৈশ্বিক মহামারি করোনার কারণে বাংলাদেশে আটকে পড়া ২৭৩ জন প্রবাসী দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর অবশেষে স্পেনে পৌঁছেছেন। স্পেন বাংলা প্রেসক্লাবের উদ্যোগে বাংলাদেশ বিমানের বিজি-৪১০৯ নম্বরের বিশেষ ফ্লাইটে করে শুক্রবার (১৯ জুন) স্থানীয় সময় বিকাল সাড়ে ৩টায় মাদ্রিদ (বারাখাছ) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছান।

এসময় তাদের স্বাগত জানান মাদ্রিদস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের কর্মকর্তা, স্থানীয় বাংলাদেশি কমিউনিটির নেতৃবৃন্দ ও আগত যাত্রীদের পরিবারের সদস্যরা।

জানা যায়, করোনা মহামারি আকার ধারণ করার পূর্বে স্পেন থেকে অনেক প্রবাসী বাংলাদেশে গিয়েছিলেন। স্পেনে করোনা পরিস্থিতি অনেকটা স্বাভাবিক পরিস্থিতির দিকে এগুলেও ফ্লাইটের অভাবে তারা স্পেনে ফিরতে পারছিলেন না। স্পেন বাংলা প্রেসক্লাবের আবেদনের প্রেক্ষিতে স্পেনস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস ও স্থানীয় বাংলাদেশি কমিউনিটির সহযোগিতায় বাংলাদেশে আটকে পড়া স্পেন প্রবাসীদের স্পেনে প্রত্যাবর্তনে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স এ বিশেষ ফ্লাইটের ব্যবস্থা করে।

ইমিগ্রেশনের আনুষ্ঠানিকতা সেরে আগত স্পেন প্রবাসীরা বিমানবন্দরের মূল দরজা দিয়ে যখন বেরুচ্ছিলেন, তাদের স্বাগত জানাতে আসা পরিবারের সদস্যদের অনেককেই আবেগে আপ্লুত হতে দেখা গেছে। দীর্ঘদিন পর স্পেনে রেখে যাওয়া পরিবারের সদস্যদের সাথে দেখা হলো ইনসাফ সুমনের। তার অনুভূতি জানতে চাইলে তিনি বলেন, অল্প কিছুদিনের জন্য জরুরি কাজে বাংলাদেশে গিয়েছিলাম। কিন্তু এভাবে আটকা পড়বো চিন্তাই করিনি। পরিবারের কাছে পৌঁছতে পেরে আমি খুবই খুশি।

আরেক যাত্রী রুনু নজরুল বলেন, বার্সেলোনায় স্ত্রী, সন্তান এবং নিজের ব্যবসা রেখে বাংলাদেশে ছিলাম দুশ্চিন্তার মধ্যে। সৃষ্টিকর্তার কাছে কৃতজ্ঞতা জানাই এজন্য যে আমি স্পেনে ফিরতে পেরেছি।

ওয়াজিজুর রহমান মুজিব স্ত্রী, সন্তান নিয়ে ছুটির সময় কাটাতে গিয়েছিলেন বাংলাদেশে। নিজস্ব কর্মক্ষেত্রে যোগ দিতে জরুরি ভিত্তিতে বিশেষ ফ্লাইটের সুযোগ পেয়ে এসেছেন কেবল তিনি। বিমান চলাচল স্বাভাবিক হলে স্ত্রী সন্তানরাও ফিরবেন।

স্পেন প্রবাসী বাংলাদেশিদের নিয়ে স্পেনে এ প্রথম বিমান বাংলাদেশ অবতরণ করলো। আগতরা বিমান বাংলাদেশের যাত্রী সেবা নিয়েও সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন । মাদ্রিদ বারাখাছ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আগত প্রবাসীদের স্বাগত জানাতে উপস্থিত ছিলেন মাদ্রিদস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের প্রথম সচিব (শ্রম) মো. মোতাসিমুল ইসলাম।

তিনি বলেন, স্পেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা দীর্ঘদিন বাংলাদেশে আটকা পড়েছিলেন। বিভিন্ন সময় আমাদের সাথে তারা যোগাযোগ করেছেন যাতে স্পেনে ফিরে আসার ব্যাপারে উদ্যোগ নেয়া হয়। বিমান বাংলাদেশে করে তারা ফিরলেন। এজন্য আমরা আনন্দিত। তিনি বাংলাদেশ বিমানসহ স্পেন বাংলা প্রেসক্লাব ও স্থানীয় বাঙালি কমিউনিটিকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, সকলের সহযোগিতায় বিমান বাংলাদেশ মাদ্রিদে অবতরণ করতে পেরেছে।

বাংলাদেশ বিমানের বিশেষ ফ্লাইটটির ব্যাপারে স্পেন বাংলা প্রেসক্লাবকে সহযোগিতা করেছেন স্পেনের প্রবীণ কমিউনিটি নেতা খোরশেদ আলম মজুমদার ও মানবাধিকার সংগঠন ভালিয়েন্তে বাংলা এর সভাপতি মো. ফজলে এলাহী। খোরশেদ আলম মজুমদার বলেন, সবার মধ্যে যে উৎকন্ঠা ছিল, বিমান বাংলাদেশ মাদ্রিদে অবতরণ করায় তার অবসান হয়েছে। এজন্য বাংলাদেশ দূতাবাস, বিমান বাংলাদেশ কর্তৃপক্ষ, স্পেন বাংলা প্রেসক্লাব ও স্পেনের বাংলাদেশি কমিউনিটির সবাইকে ধন্যবাদ জানাই।

বাংলাদেশ এসোসিয়েশন ইন স্পেনের সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান সুন্দর, প্রবাসীদের দীর্ঘদিনের আশা বাংলাদেশ বিমানের ঢাকা-মাদ্রিদ ফ্লাইট চালুর দাবি তা শিগগিরই বাস্তবায়নের জন্য সরকারের প্রতি দাবী জানান।

ভালিয়েন্তে বাংলার সভাপতি মো. ফজলে এলাহি বলেন, ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করলে সুফল পাওয়া যায়, বাংলাদেশ বিমানের এ অবতরণ প্রমাণ করে। বিপাকে পড়া বাংলাদেশিরা স্পেনে ফিরেছেন, এটাই আমাদের আনন্দ।

স্পেন বাংলা প্রেসক্লাবের সভাপতি সাহাদুল সুহেদ বলেন,সংবাদ পরিবেশনের পাশাপাশি কমিউনিটির প্রতি দায়বদ্ধতাও রয়েছে সংবাদকর্মীদের। এ দায়বদ্ধতা থেকেই বাংলাদেশে বিপাকে পড়া স্পেন প্রবাসীদের স্পেনে প্রত্যাবর্তনে আমরা উদ্যোগ নেই। বিমান বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী মোকাব্বির হোসেন, বাংলাদেশ দূতাবাসের কর্মকর্তাবৃন্দ, বাংলা কাগজের উপদেষ্টা খায়রুল ইসলাম এবং কমিউনিটির সর্বস্তরের মানুষের সহযোগিতায় বিশেষ ফ্লাইটটি স্পেনে অবতরণ করেছে। তাই সকলকে আমাদের সংগঠনের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি।

মাদ্রিদ বারাখাছ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আগত স্পেন প্রবাসীদের স্বাগত জানাতে কউিনিটি নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েন ইন স্পেনের সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান সুন্দর, স্পেন বাংলা প্রেসক্লাবের সভাপতি সাহাদুল সুহেদ, সদস্য কবির আল মাহমুদ, ঢাকা জেলা অ্যাসোসিয়েশন এর সাধারণ সম্পাদক এসএম মাসুদুর রহমান, ভালিয়েন্তে বাংলার সাধারণ সম্পাদক রমিজ উদ্দিন, আবু জাফর রাসেল, কুলাউড়া ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন ইন স্পেন এর সভাপতি খায়রুজ্জামান জামান, জাহাঙ্গীর আলম ইব্রাহীমসহ বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

করোনা মহামারির কারণে বাংলাদেশে আটকে পড়া স্পেন প্রবাসীদের প্রত্যাবর্তনে বিশেষ ফ্লাইটের জন্য স্পেন বাংলা প্রেসক্লাবের সিনিয়র সহ সভাপতি বনি হায়দার মান্না সমন্বয়ক হিসেবে কাজ করেন। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আফাজ জনি, বাংলাদেশে থাকাকালীন স্পেন প্রবাসী মাসুমের রহমান, আমিনুর রাজ্জাক, ওয়াসিম মিয়াসহ স্পেন বাংলা প্রেসক্লাবের সদস্যরাও কাজ করেছেন।

বিমানের যাত্রী মাদ্রিদ প্রবাসী মাসুমের রহমান, ছুটিতে বেড়াতে গিয়ে বাংলাদেশে আটকা পড়েছিলেন। প্রায় পাঁচ মাস পর ফিরেছেন। তিনি বলেন, বিমানে বিধি মোতাবেক সামাজিক দূরত্ব মেনে আসন বরাদ্দ করা হয়েছে। একই পরিবারের সদস্য না হলে পাশাপাশি আসনে কাউকে বসতে দেওয়া হয়নি।তিনি স্পেনে ফিরতে উদ্যোগ নেয়ায় স্পেন-বাংলা প্রেসক্লাবসহ সংশ্লিষ্ট সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

স্পেন বাংলা প্রেসক্লাবের নেতৃবৃন্দ জানান, ‘আটকেপড়া যাত্রীদের ফেরাতে স্পেন বাংলা প্রেসক্লাব উদ্যোগ নেয়। নানাভাবে ফেসবুকে লাইভ প্রচারণা চালিয়ে আমাদের প্রচেষ্টায় স্পেন ফিরতে ইচ্ছুক প্রবাসীদের নাম রেজিস্ট্রেশন করি। এরপর তালিকা বিমানের দফতরে জমা দেই। পরে যাত্রীরা আগে আসলে আগে ভিত্তিতে ঢাকা-সিলেট ও চট্টগ্রাম বিমানের অফিসে যাত্রীরা টিকিটের টাকা জমা দেন। আটকেপড়া প্রবাসীদের স্পেন ফেরাতে বিশেষ ফ্লাইটের উদ্যোগ নেওয়ায় তিনি বিমানের সংশ্লিষ্ট সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun
22232425262728
2930     
       
  12345
2728     
       
28      
       
       
       
1234567
2930     
       

আমাদের ফেইসবুক পেইজ