সিলেটে ভারতীয় নাগরিকের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

প্রকাশিত: ৯:৪১ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৯, ২০২৩

সিলেটে ভারতীয় নাগরিকের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

সিলেটে ভারতীয় নাগরিকের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

 

অনলাইন ডেস্ক

সিলেটে কৃষ্ণ বর্মণ (৩৩) নামের এক ভারতীয় নাগরিককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সাথে তাকে পাঁচ হাজার টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে আরও এক মাস করে সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। ওসমানীনগর থানায় দায়ের হওয়া একটি মাদক মামলায় তাকে এই দণ্ড দেয়া হয়েছে।

কৃষ্ণ বর্মণ ভারতের ত্রিপুরা জেলার পশ্চিম থানার জয়পুর এলাকার মোহন বর্মণের ছেলে।

একই মামলায় সায়েক মিয়া (৪০) নামের অন্য একজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড সহ সমপরিমাণ সাজা দেন আদালত। তিনি বিশ্বনাথ উপজেলার দেওকলস ইউনিয়নের কালিজুরি গ্রামের মৃত মুহিবুর রহমানের ছেলে।

বুধবার (২৯ নভেম্বর) দুপুরে সিলেটের সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মশিউর রহমান চৌধুরী এ রায় ঘোষণা করেন।

আদালতের পিপি অ্যাডভোকেট নিজাম উদ্দিন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

মামলার বরাত দিয়ে আদালত সূত্র জানায়, এ বছরের ২৮ জুলাই ভারত থেকে ব্রাক্ষণবাড়িয়ার আখাউড়া হয়ে মিথাইল অ্যামফেটামিন মিশ্রিত ইয়াবা ট্যাবলেট নিয়ে আসেন আসামি সায়েক মিয়া ও কৃষ্ণ বর্মণ। গোপন সংবাদে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর মৌলভীবাজার সার্কেলের পরিদর্শক অমর কুমার সেন ওইদিন সন্ধ্যায় ওসমানীনগর উপজেলার গোয়ালাবাজারে স্বাদ মিষ্টি দোকান থেকে তাদের আটক করেন।

এসময় সায়েক মিয়ার কাছ থেকে চার হাজার পিস মিথাইল অ্যামফেটামিন মিশ্রিত ইয়াবা ট্যাবলেট, ৫শ’ টাকার ৪টি ভারতীয় নোট ও মোবাইল সেট জব্দ করা হয়। আর কৃষ্ণ বর্মণের কাছ থেকে ছয় হাজার পিস মিথাইল অ্যামফেটামিন মিশ্রিত ইয়াবা ট্যাবলেট জব্দ করা হয়।

এ ঘটনায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের পরিদর্শক অমর কুমার সেন বাদী হয়ে ওসমানীনগর থানায় মামলা দায়ের করেন। তদন্ত শেষে অধিদপ্তরের উপ-পরিদর্শক (এসআই) কাকন রায় আসামিদের বিরুদ্ধে এ বছরের গত ১৩ সেপ্টেম্বর আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। গত ১৯ নভেম্বর আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের পর সাতজন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ হয়। এরপর আদালতের বিচারক সায়েক মিয়া ও কৃষ্ণ বর্মণকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড, পাঁচ হাজার টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে আরও এক মাসের সশ্রম কারাদণ্ড দেন।

মামলায় রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন পিপি অ্যাডভোকেট নিজাম উদ্দিন। আর আসামি সায়েকের পক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট রাজু ভৌমিক ও কৃষ্ণ বর্মণের পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোহাম্মদ তারেক।

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun
   1234
26272829   
       
  12345
2728     
       
28      
       
       
       
1234567
2930     
       

আমাদের ফেইসবুক পেইজ