চৌহাট্টায় বোমা ছিল না, আতঙ্ক ছড়াতেই বোমা সদৃশ্য বস্তু রেখে যায় দুর্বৃত্তরা

প্রকাশিত: ৪:৪৬ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৬, ২০২০

চৌহাট্টায় বোমা ছিল না, আতঙ্ক ছড়াতেই বোমা সদৃশ্য বস্তু রেখে যায় দুর্বৃত্তরা

নিজস্ব প্রতিবেদক :: সেনাবাহিনীর দুই ঘন্টার রূদ্ধধার অভিযানে অবশেষে জানা গেল বোমা সদৃশ্য বস্তুতে বোমা ছিল না। আতঙ্ক ছড়াতেই বোমা সদৃশ্য বস্তু রেখে যায় দুর্বৃত্তরা।

আজ বৃহস্পতিবার বেলা সোয়া ৪টায় গণমাধ্যমে এ তথ্য জানান বোমা ও বিস্ফোরক বিশেষজ্ঞ লে. কর্ণেল রাহাত ও লে. কর্ণেল খালেদ।

তিনি জানান, এটা একটি গাইন্ডিং মেশিন। হয়তো ভুলবশত, নয়তো যেহেতু এটা পুলিশ সদস্যের গাড়ি তাই আতঙ্ক ছড়াতেই বোমা সদৃশ্য বস্তু রেখে দিয়েছে। তবে এটাতে কোন ধরণের বিষ্ফোরক দ্রব্য ছিল না।

সিলেটের চৌহাট্টায় ট্রাফিক সার্জেন্টের মোটরসাইকেলে রাখা সেই বস্তুটি ২১ ঘন্টা পর জানা গেলো সেটা বোমা নয় গ্যান্ডিন মেশিন।

Posted by Syl News BD on Thursday, 6 August 2020

এর আগে বেলা ২টায় ঘটনাস্থলে এসে পৌছে সিলেট ক্যান্টনম্যান্টের ১৭ পদাতিক ডিভিশন সেনাবাহিনীর একটি বোমা নিষ্ক্রিয়করণের স্পেশাল টিম। সেনাবাহিনীর ওই টিম এসে বোমা সদৃশ্য বস্তু উদ্ধারে কাজ শুরু করেন।

উলে­খ্য; গতকাল বুধবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে সিলেট নগরীর চৌহাট্টায় ট্রাফিক সার্জন চয়ন নাইডুর মোটরসাইকেলে দৃর্বুত্তরা বোমা সদৃশ্য বস্তু রেখে দেয়। এর পরপরই চৌহাট্টা পয়েন্টসহ আশপাশ এলাকা পুলিশ ঘিরে রাখে। খবর দেওয়া হয় পুলিশের বোমা নিস্ক্রিয়করণ ইউনিটকে। রাত ৯টায় র‌্যাব ও সিআরটির টিম ঘটনাস্থলে যান। পরে পুলিশের বোমা নিস্ক্রিয়করণ ইউনিটকে খবর দেওয়া হয়।

আজ সেনাবাহিনীর একটি স্পেশাল টিম ঘটনাস্থলে আসেন। ২টার পর উদ্ধার অভিযান শুরু করে। টানা ২ ঘন্টার রূদ্ধধার অভিযানের পর জানা গেল, মূলত এতে কোন বোমা ছিল না। এলাকায় আতঙ্ক ছড়াতেই দুর্বৃত্তরা বোমা সদৃশ্য বস্তু রেখে যায়।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ