বিনা পারিশ্রমিকে দুই হাজার কবর খননকারী জুড়ীর ‘লাদেন’ আর নেই

প্রকাশিত: ৪:৪৬ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৯, ২০২০

বিনা পারিশ্রমিকে দুই হাজার কবর খননকারী জুড়ীর ‘লাদেন’ আর নেই

স্বপন দেব, নিজস্ব প্রতিবেদক :: মৌলভীবাজারের জুড়ীতে বিনা পারিশ্রমিকে দুই সহস্রাধিক কবর খননকারী হাজী সফিক উদ্দিন চৌধুরী লানে আর নেই। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৫৫ বছর। বুধবার (১৯ আগষ্ট) ভোর ৬টায় সিলেটের একটি হাসপাতালে এই মানবতার প্রতীক লাদেন ইন্তেকাল করেন।
কবর খননকারী লাদেন প্রায় ২ সপ্তাহ যাবৎ মুমূর্ষু অবস্থায় হাসপাতালের আইসিইউতে ছিলেন। তিনি জুড়ী উপজেলার জায়ফরনগর ইউনিয়নের শাহপুর গ্রামের মৃত হাজী মোঃ মবশ্বির আলী চৌধুরীর পুত্র।
দাফন কাজে সর্বা স্বেচ্ছায় প্রস্তুত থাকতেন হাজী মোঃ সফিক উদ্দিন চৌধুরী তাঁর মনের মধ্যে সর্বদা বিরাজমান ছিলো এক দুর্লভ মানবতা। মৌলভীবাজারের জুড়ী, বড়লেখা, কুলাউড়াসহ বিভিন্ন উপজেলার লোকজনের কাছে তিনি লানে নামে ব্যাপক পরিচিত।
বরাবরের মত ঈদ-উল- আযহার পরের দিন দা, কোলসহ কবর খননের পুরো সরঞ্জাম নিয়ে দাফনকাজে বের হয়েছিলেন লানে। ওইদিন তিনি দাফনকাজ সম্পন্ন করে, হঠাৎ তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। এমতাবস্থায় প্রথমে কুলাউড়া হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তাঁকে। পরে সেখান থেকে সিলেটের একটি হাসপাতালে তাঁকে ভর্তি করা হয়। শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে, মুমূর্ষু অবস্থায় তাঁকে হাসপাতালের আইসিউতে রাখা হয়।
২০০৩ইং সাল থেকে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত কোনো পারিশ্রমিক ও কোনো ধরনের প্রতিদান ছাড়া সম্পূর্ণ বিনামূল্যে ২হাজারের বেশি কবর তিনি খনন করেছেন বিভিন্ন কবরস্থানে। কখনো-কখনো দিনে ৩ থেকে ৪টি কবরও খনন করতে হয়েছে তাঁকে।
সর্বাবস্থায় পরিচিত-অপরিচিত যে কারো মৃত্যুর সংবাদ কোনভাবে পেলেই ছুটে যেতেন, সেখানে কবর খনন করে দাফনকাজসহ বিভিন্ন সহযোগীতা করতে। দূরদূরান্তে কবর খননের জন্য রয়েছিলো তাঁর একটি পিকআপ গাড়ী। আর এ গাড়ীতে থাকতো, কোাল, খুন্তাসহ কবর খননের পুরো সরঞ্জাম। তাই কবর খননকারী লাদেন নামে তিনি ব্যাপক পরিচিত।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun
15161718192021
22232425262728
2930     
       
  12345
2728     
       
28      
       
       
       
1234567
2930     
       

আমাদের ফেইসবুক পেইজ