স্বামীঘাতক ফেঞ্চুগঞ্জের গেনী বেগমকে কারাগারে প্রেরণ

প্রকাশিত: ৬:৫৭ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৪, ২০২০

স্বামীঘাতক ফেঞ্চুগঞ্জের গেনী বেগমকে কারাগারে প্রেরণ

নিজম্ব প্রতিবেদক :: পরকীয়ার জেরে ঘুমন্ত অবস্থায় স্বামীর পুরুষাঙ্গ কেটে হত্যার দায়ে ঘাতক স্ত্রী গেনী বেগমকে কারাগারে প্রেরণ করেছেন আদালত।

আজ ২৪ জুলাই, শুক্রবার সিলেট জেলা ও যুগ্ম জজ আদালতে তাকে হাজির করা হয়। ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি রেকর্ড করেন আদালত। আদালতে গেনী বেগম স্বামীকে হত্যা করেছেন বলে দায় স্বীকার করেন। পরে আদালত তাকে জেল হাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

এর আগে গতকাল রাত ১২টার দিকে ফেঞ্চুগঞ্জ থানাধীন ঘিলাছড়া যুধিষ্টিপুর গ্রামের হাকালুকি হাওড়ের জিরো পয়েন্ট এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়।

নিজাম আহমদ নিহতের পর তার ভাতিজা তুহিন আহমদ গেনী বেগমকে আসামী করে দক্ষিণ সুরমা থানায় মামলা দায়ের করেন। যার নং- ১৯ (২৪.০৭.২০২০)।

জানা যায়, নিজাম আহমদ দুই সন্তানসহ স্ত্রী নিয়ে মোমিনখলার ভাড়া বাসায় দীর্ঘদিন থেকে বসবাস করে আসছেন। বুধবার দিবাগত রাতের কোনো এক সময় নিজামকে ঘুমন্ত অবস্থায় পুরুষাঙ্গ কেটে খুন করেন স্ত্রী গেনী বেগম। খুনের পর তিনি ২ সন্তান রাফি (১৫) ও রাহি (১০) কে নিয়ে ভোর বেলা বাবার বাড়ী ফেঞ্চুগঞ্জে চলে যান। ভোরে শিশু সন্তানদের দেখে ভাইয়েরা জিজ্ঞাস করলে, তিনি তার স্বামীর ঝগড়ার ঘটনা ঘটেছে বলে জানান। পরে গেনী বেগমের ভাই এনুমিয়া ঝগড়ার বিষয়টি নিজাম আহমদ এর বড় ভাই আসলাম আহমদকে জানায়। তার বোনেরবাসায় যাওয়ার জন্য অনুরোধ করেন। এই প্রেক্ষিতে নিজাম আহমদ এর ভাতিজা তুহিন আহমদ তার চাচা নিজাম আহমদ এর বাসায় এসে দরজা তালা বদ্ধ দেখে বাড়ীওয়ালা সহ আশপাশের লোকজনকে অবগত করেন।

পরে পুলিশকে খবর দেওয়া হয়। পুলিশ বাসার দরজা খুলে নিজাম আহমদকে মৃত অবস্থা অবস্থায় দেখতে পায়। লাশ কাঁথা দিয়ে ঢাকা। শরীরের আঘাতের চিহ্ন এবং পুরুষাঙ্গ কর্তিত অবস্থায় লাশ উদ্ধার করে সিলেট এম এ জি ওসমানী হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) অতিরিক্ত দায়িত্বে থাকা (মিডিয়া এন্ড কমিউনিটি সার্ভিস) জ্যোতির্ময় সরকার পিপিএম বলের, গেনী বেগম আদালতে স্বামী হত্যার দায় স্বীকার করেছে। আদালত তাকে জেল হাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun
   1234
26272829   
       
  12345
2728     
       
28      
       
       
       
1234567
2930     
       

আমাদের ফেইসবুক পেইজ