শ্রীলেখা যে কারণে মীরাক্কেল থেকে বাদ পড়লেন

প্রকাশিত: ৫:১৫ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২, ২০২০

শ্রীলেখা যে কারণে মীরাক্কেল থেকে বাদ পড়লেন

বিনোদন ডেস্ক :

দুই বাংলার জনপ্রিয় অনুষ্ঠান মীরাক্কেল। টালিউডের জনপ্রিয় নায়িকা শ্রীলেখার বিচারক হিসেবে সরব উপস্থিতি অনুষ্ঠানটিকে ভিন্ন মাত্রা দিয়ে আসছে। কিন্তু এবার আচমকা জানা গেল রিয়েলিটি শো থেকে এই সুদর্শনীকে বাদ দেয়া হয়েছে।

এই বাদ পড়া মানতে কষ্ট হচ্ছে দীর্ঘদিন ধরে অনুষ্ঠানটির সঙ্গে লেগে থাকা শ্রীলেখা। এ কারণে ক্ষোভও চেপে রাখতে পারেননি তিনি। ফেসবুক স্ট্যাটাস দিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন তিনি।

ইন্ডিয়া টাইমসের প্রতিবেদনে বল হয়েছে, মীরাক্কেল থেকে বাদ দেয়ার ব্যাপারে জি বাংলা থেকে সরাসরি কিছু জানানো হয়নি শ্রীলেখাকে। কোনো ফোনও করা হয়নি। তবে শুটিং শুরু হয়ে গেছে। অনুষ্ঠানের সঞ্চালক মীরও শ্রীলেখাকে কিছু বলেননি।

শ্রীলেখা মনে করছেন কর্তৃপক্ষকে তেল না দিতে পারার চড়া মূল্য দিতে হয়েছে তাকে। স্বজনপ্রীতি করে তাকে এত বছরের অনুষ্ঠান থেকে বাদ দেয়া হয়েছে।

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পরই টালিউডে স্বজনপ্রীতি নিয়ে মুখ খুলেছিলেন শ্রীলেখা। সেখানে তিনি বলেছিলেন, কীভাবে তাকে জোর করে নানা কাজ থেকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে। সরাসরি টালিউডের শক্তিমান অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় ও ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তের দিকে আঙুল তুলেছিলেন শ্রীলেখা। কীভাবে প্রেম করে ঋতুপর্ণা-প্রসেনজিৎ জুটি জনপ্রিয় হন, সেই ব্যাখ্যাও তিনি দিয়েছিলেন। এমনও বলেছেন, প্রসেনজিৎকে ঘনিষ্ঠভাবে সময় দিলে হয়ত তিনি বেশি সুযোগ পেতেন। সে সুযোগ তিনি নেননি। নিজের ফেসবুক পেজে দীর্ঘ এক ভিডিও বার্তায় এ বিষয়ে বিস্তারিত বলেন তিনি।

ওই ভিডিও বার্তার পর বেশ কিছু গণমাধ্যম তা প্রচার করে। এরপর তাকে কটাক্ষ করেই স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায় বলেছিলেন, নিজের সীমাবদ্ধতা ঢাকতে অন্যদের কাজকে ছোট করার কিংবা কটাক্ষ করে তাদের অপমান করার কোনো অর্থ নেই।তবে স্বস্তিকার সেই সমালোচনার জবাব দেননি শ্রীলেখা। শোনা যাচ্ছে স্বস্তিকাকেই শ্রীলেখার আসনে বসানো হচ্ছে মীরাক্কেলে।

এ বিষয়ে ফেসবুকের পোস্টে শ্রীলেখা লেখেন, ‘আমায় বাদ দিয়েই বাংলার সবচেয়ে জনপ্রিয় কমেডি শো আবার শুরু হচ্ছে। সত্যি কথা বলার জন্য এবং ব্র্যান্ডের প্রতি এত বছরের আনুগত্যের জন্য আমাকে এর মূল্য দিতে হলো। সেই সঙ্গে অবশ্যই এই প্রক্রিয়ার কোনো অংশে তেল না দেয়ার জন্যও মূল্য দিতে হলো। ধন্যবাদ এই জনপ্রিয় চ্যানেলটিকে। আমি সেই নারী, যে আমার সীমাবদ্ধতাগুলো স্বীকার করি। যাঁরা আমায় অপছন্দ করেন, ঘৃণা করেন, তাঁরা এবার পার্টি করতে পারেন।’

আত্মসম্মান নিয়েই শ্রীলেখা এগিয়ে যাবেন। এই প্রত্যয় ব্যক্ত করে পোস্টের অপর অংশে নায়িকা লেখেন, ‘এই সব ঘটনাই প্রমাণ করে, ইন্ডাস্ট্রির অন্দরে নেপোটিজম (স্বজনপ্রীতি) কীভাবে চলছে। এই সব কিছুই প্রমাণ করে যে আমার ইউটিউব চ্যানেলে ওই বিস্ফোরক তথ্যগুলো তুলে ধরে আমি ঠিক কাজই করেছিলাম। এটা আমার কাছে নতুন কিছু নয়; বরং অন্য রকম হলেই আমি অবাক হতাম। আর লেডি, তোমার ছোট প্রশ্নকে আমি এড়িয়ে যাওয়ার জন্যই বেছে নিয়েছি। আপনি আমার খামতি ঠিকই ধরেছেন, কিন্তু খামতি নিয়ে আমি এখন কথা বলতে চাই না। আমার ভুল আমি নম্রতার সঙ্গে স্বীকার করি। এই সামাজিক ব্যবস্থার বিরুদ্ধে আমি লড়াই করতে অক্ষম, তবে মাথা নিচু করব না। আপনারা সবাই খুব ভালো কাজ করুন। জীবন একটা বড় কমেডি শো। সবাই ভালো থাকবেন। সাবধানে থাকবেন।’

এসব অন্যায়ের বিরুদ্ধে শ্রীলেখার লড়াই চলবে। ‘এই সামাজিক ব্যবস্থার বিরুদ্ধে আমি লড়াই করতে অক্ষম, তবে মাথা নিচু করব না। আপনারা সবাই খুব ভালো কাজ করুন। জীবন একটা বড় কমেডি শো। সবাই ভালো থাকবেন। সাবধানে থাকবেন।’

১০ বছরের বেশি সময় ধরে মীরাক্কেলের বিচারকের আসনে দেখা গেছে শ্রীলেখা মিত্রকে। একাধিক সংবাদমাধ্যম থেকে জানা গেছে, এবার হয়ত মীরাক্কেলে দেখা যেতে পারে স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়, পাওলি দাম কিংবা নুসরাত জাহানকে। যদিও তাদেরও কিছু জানায়নি জি বাংলা।

শ্রীলেখা এতটা কষ্ট পেয়েছেন যে, সাফ জানিয়ে দিয়েছেন মীরাক্কেলের পরবর্তী সিজনে যদি তাকে ডাকা হয় তবে তিনি যাবেন না। কারণ, তার কাছে আত্মমর্যাদার দাম অনেক বেশি। তবে শ্রীলেখাহীন মীরাক্কেল মানতে পারছেন না তার অনুরাগীরাও।

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun
1234567
15161718192021
22232425262728
293031    
       
22232425262728
2930     
       
  12345
2728     
       
28      
       
       
       
1234567
2930     
       

আমাদের ফেইসবুক পেইজ